Connect with us

হ্যাকিং কি ? হ্যাকিং এর ইতিহাস ১৯৭০ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত্য যেসব হ্যাকিং হয়েছে।

হ্যাকিং

হ্যাকিং কি ? হ্যাকিং এর ইতিহাস ১৯৭০ থেকে ২০১৩ পর্যন্ত্য যেসব হ্যাকিং হয়েছে।

তথ্য প্রযুক্তির ছোঁয়ায় মানুষের জীবন হয়ে উঠেছে সহজ এবং নানা সুবিধায় সমৃধ্য কিন্তু তার সাথে সাথে আরেকটি বিষয়ও চলে এসেছে সবার সামনে। আর তা হল হ্যাকিং। আর হ্যা অনলাইনে অপরাধী গোষ্ঠীর অপরাধ প্রবণতা এখন প্রযুক্তি বিশ্বের অন্যতম আলোচিত।

হ্যাকিং কি ?

বর্তমান সময়ের প্রেক্ষিতে কোনো অনুমতি ছাড়াই অন্য কারো অ্যাকাউন্টে/নেটওয়ার্কে/কম্পিউটারে প্রবেশ করে সেখান থেকে গুরুত্বপূর্ন্য তথ্য গ্রহণ করা, মুছে দেওয়া বা এমন ভাবে পরিবর্তন করা যা ওই ব্যাক্তি বা প্রতিষ্ঠানের জন্য ক্ষতিকর তাকেই হ্যাকিং বলা হয়। কি করা যায় না এই হ্যাকিং এর সাহাজ্যে! অনলাইন অ্যাকাউন্ট থেকে টাকা চুরি, ব্যাক্তিগত তথ্য সংগ্রহ, ভাইরাস, ম্যালওয়ার আক্রমণ। এমনকি আপনার জীবনও ধংস্ব হয়ে যেতে পারে, যদি খুব খারাপ হ্যাকারের হাতে পরেন। এমনকি আপনি যেসব ক্র্যাক সফটওয়ার ব্যবহার করেন তা এই হাকিং এর দৌলতেই।

হ্যাকিং এর সূত্রপাতঃ

হ্যাকিং নিয়ে এখনকার সময়ে চরম বিরূপ মনোভাব থাকলেও হ্যাকিং এর সুত্রপাতটা কিন্তু এমন ছিলোনা। গত শতাব্দীর পঞ্চাশ ও ষাটের দশকে মুলতঃ ম্যাসাচুসেট ইনস্টিটিউড অফ টেকনোলজি { Massachusetts Institute of Technology (MIT)} এর কিছু শিক্ষার্থী তাদের মেধার সর্বোত্তম ব্যাবহারে জন্য গঠন করে বিশেষ একটি দল, যারা অন্যান্য শিক্ষার্থীদের তুলনায় চিন্তা ও দক্ষতায় অনেক এগিয়ে। যেকোনো প্রোগ্রামিং সমস্যা সমাধানের জন্য MIT এর এই দলই শেষ ভরসা। এই দলেরই প্রত্যেক সদস্য কে বলা হত হ্যাকার।

ধীরে ধীরে কম্পিটারের ব্যবহার বেড়ে যায় বহুগুণে। আর এর ব্যবহার ক্ষেত্রও প্রসারিত হতে থাকে। সাথে সাথে বাড়তে থাকে MIT –এর সদস্যদের সক্ষমতা। তাদের মেধা ও দক্ষতায় কম্পিউটারের প্রসারও নতুন গতি পায়। এসব হ্যাকারদের প্রায় সবাই ছিল তরুণ। উদ্ভাবনী শক্তি, মেধা আর চিন্তার গভীরতা ছিল তাদের প্রধান অস্ত্র। বর্তমান সময়ের হ্যাকিং এর যে ধারা তারও বীজ ছিলো এই হ্যাকারদের মাঝেই। প্রোগ্রামিং এর উপর অসাধারণ দক্ষতা তাদের দিয়েছিলো প্রভূত ক্ষমতা। বয়সে তরুণ সেইসব হ্যাকারদের মাঝেই ক্ষমতার অপব্যবহার শুরু হয় কিছু মাত্রায়।

হ্যাকিং এর ইতিহাসঃ

সত্তরের দশকে আবির্ভাব ঘটে ফ্রিকদের এরাও একধরেনের হ্যাকার কিন্তু তাদের কাজের ধরন অনুযায়ী এই নামকরণ করা হয়। এরা টেলিফোন সিস্টেমের নেটওয়ার্ক হ্যাক করে বিনা খরচে কথা বলতো টেলিফোনে। ১৯৭০ সালে টেলিফোন সিস্টেমের নেটওয়ার্ক হ্যাক করার জন্য John Thomas Draper নামে একজন ফ্রিকার কে একাধিক-বার গ্রেফতার করা হয়। যিনি Captain Crunch নামেও পরিচিত। এছাড়া ক্যালিফোর্নিয়ার Homebrew Computer Club এর দুজন সদস্য। “blue boxes” নামে একধরনের ডিভাইস তৈরি করে যা দিয়ে টেলিফোন সিস্টেমের নেটওয়ার্ক হ্যাক করে ফ্রী-তে কথা বলা যেত। এই দুজন পরে “Berkeley Blue” ও “Oak Toebark” নামে পরিচিতি লাভ করে। আর শুনে তাজ্জব হবেন যে এরা দুজন ছিলোঃ “Berkeley Blue” (Steve Jobs) and “Oak Toebark” (Steve Wozniak) যারা পরবর্তীতে Apple Computer প্রতিষ্ঠা করেন।

  • এরপর আশির দশকে ৬ জন্য হ্যাকার ৬০ টি হাই-প্রোফাইল কম্পিউটার নেটওয়ার্ক হামলা চালায় যার মধ্যে ছিল  Los Alamos National LaboratorySloan-Kettering Cancer Centre এবং Security Pacific Bank অন্যতম। এই হ্যাকাররা সবাই ছিলো MIT এর হ্যাকার দলের সদস্য। ১৯৮৩ সালে এই ৬ জন হ্যাকার কে গ্রেফতার করা হয়। ওই বছরেই Turing Award পাওয়া  Ken Thompson নামে এক কম্পিউটার বিজ্ঞানী তার এক বক্তৃতায় কম্পিউটারের জন্য ক্ষতিকর একটি প্রোগ্রাম Trojan horse ম্যালওয়ার এর কথা উল্লেখ করেন।
  • ১৯৮৩ সাল থেকে নিয়মিত ভাবে প্রকাশ হতে থাকে হ্যাকিং নির্ভর ম্যাগাজিন ২৬০০ যা হ্যাকারদের জন্য নানা ধরনের টিপস নিয়ে প্রকাশিত হত। আর ক্রমেই বাড়তে থাকে হ্যাকারদের উৎপাত।
  • এরমধ্যে ১৯৮৬ সালে যুক্তরাষ্ট্র সরকার Computer Fraud and Abuse Act নামে হ্যাকিং রোধে আইন প্রণয়ন করলেও তাতে হ্যাকাররা থেমে থাকেনি বরং আরও বিস্তৃত হতে থাকে তাদের কার্জক্রম।
  • এরপর ১৯৮৮ সালে “অর্পানেট (ARPANET)” এর নেটওয়ার্কের ৬০০০ টি কম্পিউটার সিস্টেমে ছড়িয়ে পরে “মরিস ওয়ার্ম (Morris worm)” নামক এক ভাইরাস। সেই বছরই ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক অফ শিকাগো ৭০ মিলিয়ন ডলার ক্ষতির সম্মুখীন হয় কম্পিউটার হ্যাকিং এর ফলে।
  • এরপর ১৯৮৩ সালে “ডাটা স্ট্রিস” এবং “কুজি” নামক দুই হ্যাকার গ্রিফিথের এয়ারফোর্স বেজ (Griffiss Air Force Base), নাসার নেটওয়ার্ক হ্যাক করে।
  • ১৯৯৭ সালে মাইক্রোসফটের Windows NT অপারেটিং সিস্টেমে হাই প্রোফাইল আক্রমণ হয়।
  • ১৯৯৮ সালে হামলা হয় Pentagon এর তথ্য ভাণ্ডারে।

 নতুন শতাব্দীতে নতুন করে হ্যাকিং:

  • ২০০০ সালে এসে হ্যাকাররা তাদের কর্মকান্ডের মাধ্যমে গোটা দুনিয়ায় সারা ফেলতে সক্ষম হয়। মাত্র তিন দিনেই এক কানাডিয়ান হ্যাকার “MafiaBoy” Yahoo, eBay, Amazon.com, CCN এর মতো বড় বড় প্রতিষ্ঠানের সার্ভার বিকল করে দেয় হ্যাকাররা। “Denial-of-service” ব্যবহার করে এই আক্রমণ চালায় হ্যাকাররা। Creditcard.com সাইট থেকে ৫৫,০০০ এরও বেশি ক্রেডিট কার্ডের তথ্য চুরি করে হ্যাকাররা। ২০০০ সালেই বিশ্বব্যাপী ইন্টারনেটের মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে কম্পিউটার ওয়ার্ম “ILOVEYOU”। প্রেমপত্রের ছদ্মনামে এই ওয়ার্ম ভাইরাস-টি ছড়িয়ে পরে বিশ্বব্যাপী। ওই বছরই মাইক্রসফট জানায় কিছু হ্যাকার তাদের নেটওয়ার্কে প্রবেশ করে কিছু আপকামিং Windows Version এর সোর্স কোড চুরি করে।
  • ২০০১ সালেই বের হয় তৎকালীন সময়ের জনপ্রিয় টেনিস তারকা “আন্না কুর্নিকোভা”-র নামে “Anna Kournikova” ভাইরাস।
  • ২০০৬ সালে “İskorpitx” নাম নিয়ে এক তুর্কী হ্যাকার ২১,৫৪৯ টি ওয়েবসাইট হ্যাক করে।
  • আবার ২০০৭ সালে জাতিসংঘের ওয়েবসাইট হ্যাক করে তুরস্কের হ্যাকার যার কোড নাম “kerem125”।
  • ২০০৯ সালে জনপ্রিয় অ্যান্টি-ভাইরাস ক্যাস্পারস্কির নেটওয়ার্কে হামলা চালিয়ে একে বিকল করে দেয় হ্যাকারা। হ্যাক হয় গুগল এর চায়না নেটওয়ার্ক যার প্রভাব সারা গুগলের সমস্ত নেটওয়ার্ক এ ছড়িয়ে পরে। এই হামলা Operation_Aurora নামে পরিচিত। এই হামলা গুগল ছারাও Adobe SystemsJuniper NetworksRackspace এর উপর টার্গেট করা হয়েছিলো। এই হামলা চালইয়েছিল চায়না থেকে তাই এর ফলসরূপ চাইনাতে গুগল সার্ভিস (http://www.google.cn/ এখনো বন্ধ L) বন্ধ করে দেওয়া হয়েছিলো। তবে গুগল হংকং এর জন্য নতুন ওয়েবসাইট খুলে দিয়েছেঃ www.google.com.hk। এই বছর  “Conficker” নামে একটি ভাইরাস সারা পৃথিবীতে ছড়িয়ে পরে এবং কয়েক মিলিয়ন কম্পিউটার এই ভাইরাসের প্রভাবে পরে এমনকি কিছু হাই সিকিউরিটির সরকারি কম্পিউটারও আক্রান্ত হয়।
  • ২০১০ সালে “Stuxnet” নামে আর একটি ভাইরাস উইন্ডোজ কম্পিউটারের মাধ্যমে ছড়িয়ে পরে ও  “A0drul3z” নামে একজন ভারতীয় হ্যাকার  Symbian OS এর জন্য একটি খুবই শক্তিশালী ম্যালওয়ার ছড়িয়ে দেয়।
  • এক তুর্কী হ্যাকার ২০১১ সালে “Bank Of America” এর ওয়েবসাইট হ্যাক করে যার কোড নেম “JeOPaRDY”। FBI তার কাছ থেকে জানতে পারে যে ষে 85,000 credit card নামবার চুরি করেছে কিন্তু ব্যাংক কতৃপক্ষ জানায় যে ওয়েবসাইতে ক্রেডিট কার্ডের তথ্য ছিলো না। এই বছরই  PlayStation Network বিকল করে দেয় হ্যাকাররা এবং ৭৭ মিলিয়ন অ্যাকাউন্টের তথ্য চুরি করে যার মধ্যে ক্রেডিট কার্ডের তথ্যও ছিলো।
  • বাংলাদেশী হ্যাকার TiGER-M@TE ৭০০,০০০ সাইট হ্যাক করে বিশ্ব রেকোর্ড করে এবং ভারতীয় হ্যাকার Prince Bhalani সুইস ব্যাঙ্কের ২০০ জিবি ডাটাবেস হ্যাক করে।
  • এই বছরই সৌদি আরবের হ্যাকার 0xOmar অনলাইনে ৪০০,০০ টি ক্রেডিট কার্ডের তথ্য পাবলিশ করে এবং ইসরায়েলের ১ মিলিয়ন ক্রেডিট কার্ডের তথ্য পাবলিশ করার হুমকি দেয়। ফলস্বরূপ এক  ইসরায়েল হ্যাকার সোদি আরবের ২০০ ক্রেডিট কার্ডের তথ্য অনলাইনে পাবলিশ করে।
  • হ্যাকার গ্রুপ The Hacker Encrypters ফেসবুকে একটি SQLi exploit খুঁজে পায় এবং তারা এটা Pastebin এ পাবলিশ করে।
  • তুর্কী হ্যাকার F0RTYS3V3N তুর্কির গুরুত্বপূর্ন্য ওয়েবসাইট গুলি হ্যাক করে এবং একই সময়ে Google, Yandex, Microsoft, Gmail, Msn, Hotmail, PayPal Turkish অফিসের ওয়েবসাইট হ্যাক করে।
  • আর তার মধ্যে অন্যতম “ভারত বনাম বাংলাদেশের সাইবার যুদ্ধ”। এতে বাংলাদেশ এবং ভারতের অসংখ্য সরকারি এবং বেসরকারি দরকারি ওয়েবসাইট হ্যাক হয়েছিলো। সাথে আমারো ছিলো :p । যা সাইবার জগতে বাংলদেশ কে অনেক এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিল।

নিচের লিংক গুলো দেখুন তাহলেই বুঝতে পারবেন কি ভয়ংকর যুদ্ধ চলেছিলো।

  1. http://pastebin.com/wGRYK0z7
  2. http://www.cyberwarnews.info/2012/01/26/1177-sites-hacked-by-bangladesh-cyber-army/
  3. http://www.cyberwarnews.info/2012/02/09/100-websites-hacked-and-defaced-by-bangladesh-cyber-army/
  4. http://www.ehackingnews.com/2012/02/bsnlcoin-taken-down-by-bangladesh-black.html
  5. http://pastebin.com/AUPMyGS3
  6. http://www.security-ray.com/2012/02/ndtv-website-suffers-from-dns-failure_13.html
  7. http://www.voiceofgreyhat.com/2012/02/bangladesh-cyber-army-bca-hit-indian.html
  8. http://www.hackread.com/read/hackread/1455
  9. http://www.cyberwarnews.info/2012/02/17/high-commission-of-india-singapore-hacked-critical-data-leaked-by-bangladesh-cyber-army/
  10. http://pastebin.com/7U5tPgEd
  11. http://www.cyberwarnews.info/2012/02/22/cbi-central-bureau-of-investigations-india-taken-offline-by-bangladeshi-cyber-army/
  12. http://pastebin.com/u/J0k3r666
  13. http://pastebin.com/akXaDB8v
  14. http://www.hackread.com/read/hackread/1508
  15. http://pastebin.com/amHGVgUv
  16. http://pastebin.com/c8v4Gydm
  17. http://www.cyberwarnews.info/2012/03/03/indian-courier-sites-devilered-a-defacements-by-bangladeshi-black-hat-hackers/
  18. http://www.ehackingnews.com/2012/03/another-indian-server-breached-by.html
  19. http://www.hackread.com/read/hackread/2087
  20. http://pastebin.com/FyvCtjgZ
  21. http://www.cyberwarnews.info/2012/03/16/34-more-india-sites-hacked-and-defaced-by-bangladesh-cyber-army/
  22. http://www.cyberwarnews.info/2012/03/18/message-from-bangladesh-cyber-army-for-people-of-bangladesh-and-india/

২০১৩ তেও অনেক হ্যাকিং হয়েছিল তার মধ্যে অন্যতম Zero-day Java vulnerability অ্যাটাক এর সাহায্যে ফেসবুক নেটওয়ার্ক, মাইক্রসফট, অ্যাপেল কম্পিউটারে ম্যালওয়ার ছড়িয়ে ছিল কিছু হ্যাকার যার ফলে তারা ওইসব কম্পিউটার রাখা তথ্য আক্সেস করতে সক্ষম হয়।

২০১৩ এর ফেব্রুয়ারী মাসে টুইটারের সার্ভার হ্যাক করে ২৫০,০০০ উজার অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড হ্যাক হয়।

“Syrian loyalists” এর এক হ্যাকার গ্রুপের নিউজ মিডিয়া কোম্পানি Associated Press এর টুউটার অ্যাকউন্ট হ্যাক।

Hacking

হ্যাক করার পর তারা একটি টুইট করে ছিল যা ছিল “Breaking: Two explosions in the White House and Barack Obama is injured.” এই বার্তা সঙ্গে সঙ্গে পৌঁছে গিয়েছিল তাঁদের ১.৯ মিলিয়ন ফলোয়ারের কাছে। এছাড়াও হ্যাক হয়েছিল NASA এর সাব-ডোমাইন ওয়েবসাইট larc.nasa.gov । সৌদি আরবের, ফিলিপাইন্স এর গুরত্বপূর্ন সরকারি ওয়েবসাইট গুলি। DDoS অ্যাটাক করে US এর বড় বড় ব্যাংক গুলির সার্ভার ডাউন করে দেওয়া হয়েছিলো। এই বছরই সবথেকে বেশি পরিমাণে DDoS অ্যাটাক করা হয়েছিলো। ২০১৪ তে না জানি আরও কত হ্যাকিং হবে।

আজ এপর্যন্ত্যই আপনাদের আগ্রহ থাকলে হ্যাকিং নিয়ে পরবর্তীতে আরও পোস্ট করতে চেষ্টা করবো।

ভালো লাগলে শেয়ার করে অন্যকে জানাবেন ও অবশ্যই কমেন্ট করবেন এতে টেক-বাঙালীগন আরও তথ্য সমৃদ্ধ পোস্ট করতে উৎসাহিত হবে। ধন্যবাদ, ভালো থাকুন!

Continue Reading

ইনি ছোটবেলা থেকেই তথ্য-প্রযুক্তি-কে ভালোবাসেন, সব সময় প্রযুক্তি নিয়েই থাকেন। স্বাধীন ভাবে চলতে পছন্দ করেন। এখন কম্পিউটার নিয়ে পড়াশুনা করছেন ও তার পাশাপাশি ওয়েব ডেভেলপর হিসেবে ফ্রীল্যান্সিং করেন।

Click to comment

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More in হ্যাকিং

Advertisement

বিভাগ সমূহ

টেক-বেঙ্গল পোল

"বাঙালীরা এখনো তথ্য প্রযুক্তি -তে পিছিয়ে" আপনি কি মনে করেন ?

View Results

Loading ... Loading ...

সেরা টেক বাঙালী

To Top