Connect with us

গ্রাহকদের তথ্য বিক্রি করছে না গুগল ও ফেসবুক”- ল্যারি পেজ ও মার্ক জুকারবার্গ

প্রযুক্তির খবর

গ্রাহকদের তথ্য বিক্রি করছে না গুগল ও ফেসবুক”- ল্যারি পেজ ও মার্ক জুকারবার্গ

ঝড় বইছে অনলাইনে। সঙ্গে হচ্ছে রেকর্ডও। তবে এবারের ঝড় কিন্তু আলোচনার নয়। বরং সমালোচনার ঝড়। মাত্র ২১ মিনিটের ব্যবধানে ৬৯ হাজার ফেসবুক বার্তা মুছে দিয়েছে ফেসবুক নিজেই।
কারণ ফেসবুকের বিরুদ্ধে  সরকারকে গোপন তথ্য দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তবে কে বা কারা এই অভিযোগ করেছে তা জানা যায়নি। এ নিয়ে করা সকল মন্তব্যগুলো মুহূর্তের মধ্যে মুছতেই ফেসবুক নতুন করে সমালোচনার কাদায় পা মাড়িয়েছে। সংবাদমাদ্যম সূত্র এ তথ্য দিয়েছে।
এ বিষয়ে বিশ্বের সেরা দুই C.E.O ফেসবুক এর মার্ক জুকারবার্গ ও গুগল এর ল্যারি পেজ সমালোচনার তোপে পড়েছেন। যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে ‘প্রিজম’ নামে গোপন চুক্তির ভিত্তিতে এসব ব্যক্তিতথ্য অবলীলায় সরকারের হাতে তুলে দেওয়া হচ্ছে বলে অনলাইনজুড়ে খবর ছড়িয়ে পড়ে।

facebook google news

এ খবরে গুগল এবং ফেসবুক জানার পর ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন এবং এতে তাদের সম্মান ক্ষুণ্ণ হচ্ছে এবং হবে বলে জানায় গ্রাহকেরা। আর এসব প্রতিক্রিয়া মুছে দিয়ে ফেসবুক নিজেকে আরও সন্দেহের তালিকায় নিয়ে গেছে।
এ অবস্থার প্রেক্ষিতে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ মার্ক জুকারবার্গ  গ্রাহকদের উদ্দেশ্য জানিয়েছেন যে , যুক্তরাষ্ট্র সরকারের সঙ্গে ফেসবুকের তথ্য বিনিময়ে কোনো ধরনের গোপন চুক্তি সই হয়নি। এদিকে গুগল একে ভিত্তিহীন একটি গুজব বলে অভিহিত করেছে।
এ বিষয়ে গুগলের প্রধান আইনজীবী ডেভিড ড্রামমন্ড বলেন, সরকারকে তথ্য দেওয়ার এ  চুক্তি একেবারেই ভিত্তিহীন এবং মিথ্যা। গুগল কোনোভাবেই তার গ্রাহকের তথ্য বিক্রি করে না।
বিখ্যাত দুই আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান এবং ওয়াশিংটন পোস্টে  এ ধরনের তথ্য বিক্রির অভিযোগ নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। তবে তাদের এই তথ্য বিক্রির অভিযোগ  নিয়ে প্রকাশ করা প্রতিবেদন সত্য কিনা তা এখন ও জানা যায় নি। এসব প্রতিবেদনে যুক্তরাষ্ট্রের নয়টি শীর্ষ প্রতিষ্ঠান সরকারকে অবাধে ব্যক্তিতথ্য বিক্রি করছে বলে উল্লেখ করা হয়।

google facebook

এসব অভিযুক্ত প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠানের মধ্যে  ইয়াহু, গুগল, ফেসবুক,মাইক্রোসফট, পলটক,  স্কাইপি ,এওএল এবং অ্যাপল অন্যতম। অনলাইনে শুধু তথ্য বিক্রি নয়, এসব প্রতিষ্ঠানের নামে আরও অভিযোগ উঠে যে সার্ভারে যুক্তরাষ্ট্র সরকার অবাধে প্রবেশ করে থাকেন। এ অভিযোগের বিপরীত মেরুতে দাঁড়িয়ে মার্ক জুকারবার্গ বলেছেন যে , এসব ভ্রান্ত ধারণা হিসেবে ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ছে। বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে গ্রাহকদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়াতেই কোনো বিশেষ মহল এ কাজটা করছে। ‘প্রিজম’ নামে কোনো গোপন চুক্তির কথা প্রথম শুনলাম। জুকারবার্গের এ ধরনের মন্তব্যের সঙ্গে অ্যাপল কর্তৃপক্ষও একমত পোষণ করেছেন।
তবে এ অভিযোগের তীর সবচেয়ে বেশি বিদ্ধ করেছে গুগল, ফেসবুক এবং এওএল প্রতিষ্ঠানকে। যদিও এদের সবারই মধ্যে এ ধরনের গোপন চুক্তির সঙ্গে নিজেদের কোনো সম্পৃকত্তা নেই বলে দাবি জানিয়েছে। কিন্তু বিখ্যাত গণমাধ্যম দ্য গার্ডিয়ান প্রতিবেদনে প্রকাশ করা হয় যে , এরই মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের টেলিকম অপারেটর ভেরিজন দেশটির ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সিকে গত তিনমাস ধরে  গ্রাহকদের সব ধরনের তথ্য সরবরাহ করছে।
এদিকে জুকারবার্গ এবং ল্যারি পেজ বলেছেন, অবশ্যই আমরা সরকারকে তথ্য দিয়ে থাকি। কিন্তু নিরাপত্তা এবং আইনি প্রশ্নেই সরকারকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিয়ে সহায়তা করা হয়। এর পেছনে কোনো ধরনের আর্থিক সুবিধার বিষয় জড়িত নয়।গুগল তার গ্রাহকদের প্রাইভেসি আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল এবং সতর্ক।
তবে একই অভিযোগ অভিযুক্ত টেলিকম অপারেটর ভেরিজনের প্রসঙ্গ টেনে জুকারবার্গ বলেন, ন্যাশনাল সিকিউরিটি এজেন্সির সঙ্গে আইসিটি প্রতিষ্ঠানগুলোর চুক্তির আর অপারেটরদের চুক্তি  ধরণ এক নয়। এ জন্য তাদের তথ্যভিত্তিক আইনি নিরাপত্তা আর গুগল ও ফেসবুকের নিরাপত্তা কাঠামো একেবারেই অভিন্ন।
তবে এসব প্রতিষ্ঠান যা-ই বলুক না কেন, গ্রাহকদের মনে এ নিয়ে দারুণ অনিশ্চয়ত,শঙ্কা  ও এক ধরনের ভয়-ভিতি তৈরি হয়েছে। আর তা দূর করতে গুগল এবং ফেসবুককে যথেষ্ট বেগ পেতে হবে।

Continue Reading
blank

ইনি ছোটবেলা থেকেই তথ্য-প্রযুক্তি-কে ভালোবাসেন, সব সময় প্রযুক্তি নিয়েই থাকেন। স্বাধীন ভাবে চলতে পছন্দ করেন। এখন কম্পিউটার নিয়ে পড়াশুনা করছেন ও তার পাশাপাশি ওয়েব ডেভেলপর হিসেবে ফ্রীল্যান্সিং করেন।

Click to comment

You must be logged in to post a comment Login

Leave a Reply

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

More in প্রযুক্তির খবর

Advertisement

বিভাগ সমূহ

টেক-বেঙ্গল পোল

"বাঙালীরা এখনো তথ্য প্রযুক্তি -তে পিছিয়ে" আপনি কি মনে করেন ?

View Results

Loading ... Loading ...

সেরা টেক বাঙালী

To Top